শুরু হলো সিয়াম সাধনার মাস “রমজান”

0
200

নিজস্ব প্রতিবেদক :
সারা বিশ্বের মুসলমানদের জন্য রহমত, বরকত আর নাজাতের বার্তা নিয়ে বছর ঘুরে আবার এলো পবিত্র সিয়াম সাধনার মাস রমজান।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সন্ধ্যায় দেশের আকাশে রমজানের চাঁদ দেখা যাওয়ায় বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকে দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা সিয়াম সাধনা শুরু করবেন। আজ রাতে তারাবিহর নামাজ পড়া এবং শেষ রাতে সেহরি খাওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হবে মাহে রমজানের আনুষ্ঠানিকতা।

জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি জানিয়েছে, মঙ্গলবার রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ফলে বুধবার থেকে রোজা শুরু হচ্ছে।

এই হিসেবে আগামী ২৬ রমজান (৯ মে) রবিবার রাতে সারাদেশে পবিত্র লাইলাতুল কদর উদযাপিত হবে।

বাদ মাগরিব জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি বৈঠকে বসে।

কমিটির পক্ষ থেকে দেশের আকাশে রমজানের চাঁদ দেখা যাওয়ার সিদ্ধান্ত জানানোর পর ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা তারাবিহ নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে করোনা ২য় ঢেউ মোকাবেলায় মসজিদে তারাবিহর নামাজে ২০জন করে আদায় করতে পারবে।

ইসলাম ধর্মের ৫টি মূল স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম হলো রোজা। প্রত্যেক মুসলমানের জন্য রোজা একটি ফরজ (অবশ্য পালনীয়) ইবাদত। রমজান সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে আল্লাহতায়ালা বলেন- ‘হে মুমিনগণ! তোমাদের ওপর সিয়াম ফরজ করা হয়েছে, যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর। যাতে তোমরা মুত্তাকি হতে পার। ’ (সুরা বাকারাহ: ১৮৩)

রমজান মাসের প্রথম ১০ দিন রহমত, দ্বিতীয় ১০ দিন মাগফিরাত এবং শেষ ১০ দিন নাজাতের সওগাত নিয়ে আসে। শেষ দশদিনে রয়েছে পবিত্র রজনী লাইলাতুল কদর। লাইলাতুল কদর সম্পর্কে মহানবী (সাঃ) বলেছেন, ‘এ মাসে এমন একটি রাত রয়েছে যা হাজার রাতের চেয়ে শ্রেষ্ঠ। যে ব্যক্তি এর কল্যাণ থেকে বঞ্চিত হল সে মূলত সকল কল্যাণ থেকেই বঞ্চিত হলো। ’

ইসলামের পরিভাষায় রোজার অর্থ হচ্ছে- সব জাগতিক আরাম-আয়েশ, মানবীয় দুর্বলতা, অপবিত্রতা থেকে দেহ এবং মনকে রক্ষা করা। ইসলাম ধর্মের অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এ মাসেই পবিত্র ধর্মগ্রন্থ ‘আল কোরআন’ অবতীর্ণ হয়েছিল। রমজানের এ মাসটি হচ্ছে সহনশীলতা প্রদর্শনের মাস। এক মাসের সিয়াম সাধনার অবসান ঘটবে পবিত্র ঈদুল ফিতরের মাধ্যমে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here