বোয়ালখালীজুড়ে নতুন বই বিতরণ উৎসব

0
273

এস.এইচ.জুনাঈদী :

করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও যথাসময়ে প্রায় সাড়ে চার কোটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যে নতুন বই তুলে দিচ্ছে সরকার। তবে এবার সম্পূর্ণ ভিন্ন এক পরিস্থিতিতে নতুন পাঠ্যবই হাতে পেতে শুরু করেছে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। নেই কোন শোরগোল; নেই উৎসবের আমেজ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের হাতে নতুন বই তুলে দিচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

করোনার সংক্রমণের কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ছুটি ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত বাড়ানো হলেও বই সংগ্রহের জন্য ফের শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়েছে স্কুলগুলো।

সরকারের পূর্ব ঘোষিত সিদ্ধান্ত মেনে ১ জানুয়ারি সকাল থেকে বোয়ালখালীর প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে বিনামূল্যে বই বিতরণ শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে নতুন বই নিতে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকেরা। সকাল থেকেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পক্ষে অভিভাবকেরা এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নিজে গিয়ে বই বিতরণের কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বই তুলে দিচ্ছে সাংসদ আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দীন আহমদ

করোনা মহামারির ভয়াবহতা মাথায় রেখে এবার গতানুগতিক সময়ের মতো একদিনেই সব শিক্ষার্থীদের হাতে বই বিতরণে সমস্যার কথা আগেই জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে বই বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করলেও ১ জানুয়ারি থেকে ধাপে ধাপে শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছাবে নতুন বই।

পশ্চিম কধুরখীল স্কুল এন্ড কলেজ এর ৮ম শ্রেণি শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দিচ্ছেন সাংসদ আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দীন আহমদ

তারাই ধারাবাহিতায় শুক্রবার পশ্চিম কধুরখীল স্কুল এন্ড কলেজে বই বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধনী আয়োজনে যোগদেন চট্টগ্রাম ৮ আসনে সাংসদ আলহাজ্ব মোছলেম উদ্দীন আহমদ। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার একেকটি শ্রেণির শিক্ষার্থীদের তিন দিন করে বই দেওয়া হবে। এভাবে মাধ্যমিকে বই বিতরণ চলবে ১২ দিন ধরে। যেসব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী কম, সেখানে একদিনেই বই দেওয়া হবে। আর যেসব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী তুলনামূলক বেশি, সেখানে তিন দিনে বই দেওয়া হবে বলেও জানা তিনি।

কধুরখীল সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক প্রথম দিনে ১ম গ্রুপকে বই তুলে দেন

এছাড়াও কধুরখীল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৯ম শ্রেণির ৭০ জন শিক্ষার্থীকে নতুন বই দেয়া হল। শ্রেণিভিত্তিক সময়সূচি অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে সকল শিক্ষার্থীকে নতুন বই দেয়া হবে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশ্বজিৎ বড়ুয়া।

সৈয়দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই তুলে দিচ্ছেন চেয়ারম্যান এস.এম.জসিম সহ অতিথিরা

৬নং পোপাদিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এস.এম. জসিম ও সাংবাদিক সেকান্দর আলম বাবর সৈয়দপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই তুলে দেন এবং এ.নূর ব্লসম স্কুলে শিক্ষার্থীদের নতুন বই তুলে দেন শিক্ষকরা।

এ. নূর ব্লসম স্কুলে শিক্ষার্থীদের বই তুলে দিচ্ছে প্রধান শিক্ষক সেকান্দর আলম বাবর

দরপপাড়া হাজী মতিউর রহমান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়েও স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্তীদের হাতে বই তুলে পিন্টু সরকার সহ অতিথিরা।

শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিচ্ছেন পিন্টু সরকার সহ অতিথিরা ছবি: পিন্টু সরকার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here